বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২

| মাঘ ৬ ১৪২৮

মহানগর নিউজ :: Mohanagar News

প্রকাশের সময়:
২০:৩৮, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক

কাজের বুয়া সেজে চুরি, চক্রের ৪ সদস্য ধরা

প্রকাশের সময়: ২০:৩৮, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক

কাজের বুয়া সেজে চুরি, চক্রের ৪ সদস্য ধরা

সংঘবদ্ধ সিঁধেল চোর চক্রের সদস্য গ্রেফতার

কাজের বুয়ার বেশে এক সৌদি প্রবাসীর বাসায় দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনায় সংঘবদ্ধ সিঁধেল চোর চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) মূল পরিকল্পনাকারী ওই কাজের বুয়াকে নোয়াখালী জেলার সুধারামপুর এলাকা থেকে তার স্বামীসহ গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতার ৪ জন হলেন- কাজের বুুয়া রুমা আকতার (৩২), তার স্বামী সাইফুদ্দিন (৩৮), দুই সহযোগী মো. সাইফুল ইসলাম (২২) ও  মো. আলম (২৪)।

পুলিশ জানায়, গ্রেফতার সকলে সংঘবদ্ধ সিঁধেল চোর চক্রের সদস্য। এর আগেও চক্রটি বায়েজিদ থানা এলাকাসহ নগরীর বিভিন্ন স্থানে চুরির ঘটনা ঘটিয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আরও দুজনের সম্পৃক্ততার তথ্য পায় পুলিশ। চুরি যাওয়া ১৩ ভরি স্বর্ণ ও একটি এলইডি টেলিভিশন উদ্ধার করা হয়।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, বাসার মালিক একজন সৌদি প্রবাসী। গত ২৫ ডিসেম্বর বাসার মালিক পরিবারের সদস্যদের নিয়ে সামাজিক অনুষ্ঠানে যোগদান করতে বাকলিয়া থানা এলাকায় খালার বাড়িতে বেড়াতে যান। ৫ দিন পর খালার বাড়ি থেকে নিজের বাসায় ফিরে এসে ঘরের ভেতর মেইন রুমের দরজা ভাঙা অবস্থায় দেখতে পান। ঘরে রাখা স্বর্ণলংকার, সৌদি রিয়েলসহ মূল্যবান জিনিসপত্র খোয়া যায়। পরে তিনি বায়েজিদ বোস্তামি থানায় এ বিষয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।

বায়েজিদ বোস্তামি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুজ্জামান মহানগর নিউজক বলেন, এটি অত্যন্ত সূক্ষ্ম প্ল্যানের কাজ। মূল মাস্টারমাইন্ড রুমা আকতার মানুষের বাসায় বুয়া সেজে প্রবেশ করে। পরে সেই বাসার গৃহিনী কিংবা অন্যান্য সদস্যদের সাথে কৌশলে কথাবার্তা বলে তথ্য সংগ্রহ করেন। এরপর সেসব তথ্য তার স্বামী সাইফুদ্দিনকে সরবরাহ করেন। সাইফুদ্দিন আবার অপর দুই সহযোগীকে ডেকে আনেন। অপর আসামিদের মধ্যে সাইফুল ও আলম চুরির করতে হাতুড়ি, কাটারসহ প্রয়োজনীয় সকল যন্ত্রপাতি সরবরাহ করে। এদের মধ্যে সাইফুলের নামে চুরি ও অস্ত্রসহ আগের দুটি মামলা রয়েছে। 

তিনি আরও বলেন, এই চক্রটি গত ২৫ থেকে ৩০ ডিসেম্বরের যে কোন সময়ে চুরি করে সটকে পড়ে। টানা ৫ দিনের অভিযান শেষে সাইফুদ্দীন ও তার স্ত্রী রুমাকে নোয়াখালী থেকে চুরি যাওয়া স্বর্ণসহ গ্রেফতার করা হয়। সাইফুলের বাসা থেকে সৌদি রিয়াল এবং আলমের বাসা থেকে চুরির কাজে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি উদ্ধার করা হয়।

এমএইচকে/এসএ