বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর ২০২১

| অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৮

মহানগর নিউজ :: Mohanagar News

প্রকাশের সময়:
১৪:৫০, ৩১ অক্টোবর ২০২১

ইফতেখার ইসলাম, চবি

চবির আইনে আগ্রহ ভর্তিচ্ছুদের

প্রকাশের সময়: ১৪:৫০, ৩১ অক্টোবর ২০২১

ইফতেখার ইসলাম, চবি

চবির আইনে আগ্রহ ভর্তিচ্ছুদের

চবি (ফাইল ছবি)

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথম বর্ষে 'ডি' ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা চলছে। সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের অধীনে 'ডি' ইউনিটে এবার এক হাজার ১৬০টি আসনের বিপরীতে আবেদন জমা পড়ে ৫৪ হাজার ২৪৯টি। সম্মিলিত এ ইউনিটে প্রতি আসনের বিপরীতে লড়ছেন ৪৭ জন।

শুক্রবার ৩০ অক্টোবর সকাল ও বিকেলে দুই শিফটে 'ডি' ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা হয়েছে। আজ আরও দুই শিফটের মাধ্যমে শেষ হবে এ ইউনিটের পরীক্ষা। এ ইউনিটের অধীন আইন বিভাগ সকলের পছন্দের শীর্ষে। বেশিরভাগ শিক্ষার্থী জানিয়েছেন এ বিভাগে ভর্তি হওয়ার স্বপ্নের কথা। 

রাজশাহী থেকে আসা হাসিবুল ইসলাম নামে 'ডি' ইউনিটের এক ভর্তিচ্ছু শুক্রবার মহানগর নিউজকে বলেন, আইনজীবী হওয়ার স্বপ্ন সেই মাধ্যমিকের শেষের দিক থেকে। পরে উচ্চ মাধ্যমিক শেষ করে খবর নিয়ে জানতে পারি চবির আইন বিভাগের বেশ নামডাক রয়েছে। এখান থেকে তৈরি হয়েছেন দেশের বড় বড় আইনজীবী। সুযোগ পেলে এখানকার আইন অনুষদে পড়বো। 

সিলেট থেকে আসা তাসনুবা তাসনীম  মহানগর নিউজকে বলেন, 'ডি' ইউনিটের বিষয়গুলোর মধ্যে আইন আমার কাছে সেরা। সুযোগ পেলে এ  বিভাগে পড়তে চাই। 
জান্নাতুল ফেরদৌসী নামে এক ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর মা বলেন, ছেলেকে নিয়ে ওর বাবার অনেক স্বপ্ন । বিশ্ববিদ্যালয়ের সব সাবজেক্ট ভালো। তবে ও ছোট থেকে আইন নিয়ে পড়াশোনায় আগ্রহী। 

চবির আইন অনুষদ সূত্রে জানা যায়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন বিভাগের যাত্রার পর ১৯৯২ সালে ৪৩টি আসন নিয়ে এই অনুষদের যাত্রা শুরু হয়। শুরুর দিকে ছিল না পর্যাপ্ত অবকাঠামো সুযোগ-সুবিধা। তবে গৌরবময় ২৮ বছর পাড়ি দিয়ে এই অনুষদ আজকে বাংলাদেশ এবং দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে। ২৮ বছরে এ অনুষদ থেকে পাস করে বেরিয়েছে ২২টির অধিক ব্যাচ। বর্তমানে অনুষদের আসন সংখ্যা ১১৫।

এ বিভাগের শিক্ষার্থীরা বিচার বিভাগের মুখ্য মহানগর হাকিম, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে কাজ করছেন। জুডিশিয়ালিতে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ হিসেবেও কাজ করছেন কেউ কেউ। তাছাড়া এ বিভাগের শিক্ষার্থীরা সেনা, নৌ এবং বিমান বাহিনীতে জজ, অ্যাডভোকেট জেনারেল হিসেবে কর্মরত আছেন।
বিভাগীয় মন্ত্রণালয় থেকে শুরু করে দেশের সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন আদালত পর্যন্ত বিভিন্ন বিচার বিভাগের বিচারক ও আইনজীবীদের প্রায় তিন ভাগের এক ভাগ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় আইন অনুষদের। তাদের মধ্যে জজ হিসেবে আছেন প্রায় ৬ শতাধিক।

এই অনুষদের শিক্ষার্থীরা চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ আসন ছাড়াও দেশের বিভিন্ন পাবলিক ও প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন।
শিক্ষার্থীদের আগ্রহের বিষয়ে জানতে চাইলে চবির আইন অনুষদের ডিন এ বি এম আবু নোমান মহানগর নিউজকে বলেন, শুরু থেকে আইন অনুষদে পড়তে বেশিরভাগ শিক্ষার্থী আগ্রহী। এ বিভাগ থেকে পড়ে আইন পেশার পাশাপাশি সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি সুবিধা পায় শিক্ষার্থীরা। এখানে ভর্তি হতে শিক্ষার্থীরা একটু বেশি উৎসাহী। আর শিক্ষক হিসেবে সেটা আমাদের জন্য একটা বড় পাওয়া। 

প্রসঙ্গত, চবির 'ডি' ইউনিটের অধীনে রয়েছে আইন অনুষদের আইন বিভাগ, সমাজবিজ্ঞান অনুষদের অর্থনীতি, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, রাজনীতি বিজ্ঞান,  সমাজতত্ত্ব,  লোকপ্রশাসন,  নৃবিজ্ঞান, যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা,  ডেভেলপমেন্ট স্টাডিজ,  ক্রিমিনোলজি ও পুলিশ সায়েন্স বিভাগ। এছাড়া এ ইউনিট থেকে ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদভুক্ত সব বিভাগ  এবং জীববিজ্ঞান অনুষদের ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা এবং মনোবিজ্ঞান বিভাগ। এ বিভাগগুলোতে আসন সংখ্যা মানবিক, বিজ্ঞান ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে আসা শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভাগ করে দেওয়া আছে।
 

কেডি